কম্পিউটার ডিজাইনে বাইনারি সংখ্যা পদ্ধতি ব্যবহারের কারণ সমূহ।


বাইনারি কোড কাকে বলেঃ

যে সংখ্যা পদ্ধতিতে দুটি অংক ব্যবহৃত হয় তাকে বাইনারি সংখ্যা পদ্ধতি বলে।বর্তমানে বিশ্বে বিভিন্ন ধরনের সংখ্যা পদ্ধতি রয়েছে; যেমন-দশমিক, বাইনারি, অক্টাল ও হেক্সা ডেসিমাল । তবে কম্পিউটার ডিজাইনে বাইনারি সংখ্যা পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়। কম্পিউটার এটি ছাড়া অন্য কিছু বুঝতে পারে না।

এ পদ্ধতিতে ব্যবহৃত অংক দুটি হলো '০' ও '১' । এ দুটি সংখ্যার সাজিয়ে আমরা বাইনারি পদ্ধতির যেকোন সংখ্যা লিখতে পারি। যেমন-০,১,০১,১০,১০০,১০১,১১০,১১১০ ইত্যাদি। বাইনারি সংখ্যা পদ্ধতির বেস হচ্ছে ২ ।

কম্পিউটার ডিজাইনে বাইনারি সংখ্যা পদ্ধতি ব্যবহারের কারণ ঃ

  • আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বিভিন্ন গণনার কাজে ব্যবহৃত সংখ্যা পদ্ধতি হল দশমিক সংখ্যা পদ্ধতি চা দশটি মৌলিক চিহ্ন বা অংকের সমন্বয়ে গঠিত। অংকগুলো হলো-০,১,২,৩,৪,৫,৬,৭,৮ ও ৯। যেহেতু কম্পিউটার ইলেকট্রিক্যাল সিগন্যালের সাহায্যে কাজ করে তাই এই দশটি অংক কে আলাদা আলাদা ভাবে প্রকাশ করা অসম্ভব না হলেও খুবই কঠিন, কিন্তু বাইনারি সংখ্যায় ব্যবহৃত অংক গুলো(০ ও ১) সহজে ইলেকট্রিক্যাল সিগন্যালের সাহায্যে প্রকাশ করা যায়।
  • দশমিক সংখ্যা পদ্ধতির যাবতীয় হিসাব নিকাশ বাইনারি সংখ্যা পদ্ধতির সাহায্য হচ্ছে করা যায়।
  • বৈদ্যুতিক সিগন্যাল থাকলে অন(on) এবং বন্ধ থাকলে অফ(off) দ্বারা প্রকাশ করা হয়। আবার বৈদ্যুতিক সিগন্যাল কে High এবং Low দ্বারাও প্রকাশ করা হয়। আর বৈদ্যুতিক সিগনাল অন(on) বা High কে ১ দ্বারা এবং অফ(off) বা Low কে সহজেই ০ দ্বারা প্রকাশ করা যায়।
  • বাইনারি সিস্টেমে দুইটি অবস্থা থাকার কারণে ইলেকট্রনিক্স সার্কিট ডিজাইন করা সহজ।
  • সাধারণত কম্পিউটার ডাটাকে কোডের মাধ্যমে প্রকাশ করে। আর বিভিন্ন ধরনের কোড গুলো গঠিত হয় বাইনারি সংখ্যার মাধ্যমে।

বাইনারি সংখ্যা কয়টি?

প্রতিটি অঙ্ককে বিট বলা এটি বাইনারি পদ্ধতির মদ্ধেই পরে। আমারা জানি।


উপসংহারঃ

এ সকল বহুবিধ কারণে কম্পিউটার ডিজাইনে বাইনারি পদ্ধতি ব্যবহার করার সুবিধাজনক। প্রসঙ্গত মনে রাখা দরকার যে কম্পিউটার যেহেতু প্রদেয়র উপাত্ত ও নির্দেশের ভিত্তিতে কাজ করে সেহেতু উপাত্ত বা নির্দেশ ভুল হলে কম্পিউটার ভুল ফলাফল প্রদান করবে। 

কারণ মানুষের তৈরি করে দেoয়া যে সকল নির্দেশমালার ভিত্তিতে কাজ করে সেসব নির্দেশ মেলা কম্পিউটারের স্মৃতিতে জমা থাকে। স্মৃতিতে জমা থাকা নির্দেশ মানার সঙ্গে মিল খুঁজে না পেলে কম্পিউটার কোন তথ্য নিয়ে কাজ করতে পারে না। কাজেই অনেক গুনে গুণী হওয়া সত্বেও কম্পিউটার অন্যান্য যন্ত্রের মত নির্বোধ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url