*ই-মেইল কি? ই-মেইল এর সুবিধা যেনে নিন বিস্তারিত*

 ই-মেইল কাকে বলেঃ

 ই-মেইল এর পূর্ণ অর্থ হলো ইলেক্ট্রনিক মেইল।ইন্টারনেটর মাধ্যমে বিভিন্ন ডিজিটাল ডিভাইস (কম্পিউটার,মোবাইল ইত্তাদি)-এর মধ্যে নির্ভরযোগ্যভাবে ডিজিটাল তথ্য আদান-প্রদান ব্যবস্থাকে ই-মেইল বলে।

ই-মেইল তথ্য আদান-প্রদানে আইপি বা ইন্টারনেট প্রটোকল ব্যবহার করে থাকে এবং এতে টেকস্ট বার্তার সাথে অ্যাটাচমেন্ট আকারে নানা ফাইল ও (ডকুমেন্টতছবি,অডিও,ভিডিও সহ যে কোনো ডিজিটাল ফাইল)পাঠানো ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত থাকা অবস্থায় সারা বিশ্বের যে  কোনো স্থানে ই-মেইল পাঠানো যায়।ইমেইল এর জন্য একটি নির্দিষ্ট ই-মেইল এড্রেস ব্যবহার হয় যা প্রত্যেক ইউজার এর জন্য ইউনিক হয়ে থাকে।নিরাপত্তার জন্য গোপন পাসওয়ার্ড দ্বারা প্রত্যেক এর ই-মেইল অ্যাকাউন্টকে সুরক্ষিত রাখা হয়।একটি ই-মেইল অ্যাড্রেসের দুটি অংশ থাকে; যার প্রথম অংশটি ব্যবহারকারীর পরিচিত এবং শেষাংশটি ডোমেইন নেম হিসেবে পরিচিত।যেমন-trash@gmail.com

ই-মেইলের সুবিধা:

 ১।ব্যবহার করা সহজ। সহজে তথ্য পাঠানো যায় ও গ্রহন করা যায় এবং কম্পিউটার এ সংরক্ষিত করে রাখা যায়

২।সবচেয়ে দ্রুত গতিতে যেকোনো তথ্য পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে পাঠানো।

৩। ইমেইলের সাথে এটাচ করে অন্য প্রোগ্রাম বা ফাইল (ডকুমেন্ট ইমেজ অডিও ভিডিও) প্রভৃতি পাঠানো যায়।
৪। একই ইমেইল সিসি বা বিসিসি করে অনেকের কাছে পাঠানো যায়।
৫। কাগজের ব্যবহার হয় না বিধায় পরিবেশের জন্য সহায়ক।
৬। ইমেইলের মাধ্যমে সহজেই খুব কম খরচে কোন পণ্য মার্কেটিং করা যায়।
৭। প্রাপ্ত মেইলের বিপরীতে স্বয়ংক্রিয়ভাবে কোন উত্তর পাঠানোর ব্যবস্থা করা যায়।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url